Breaking News

ফের কলকাতা হাই কোর্টে ধাক্কা খেলো রাজ্য সরকার

The state government again pushed the Calcutta High Court

ইস্টার্ন টাইমস , কলকাতা: উচ্চ প্রাথমিকের নিয়োগ প্রক্রিয়া খারিজ করলেন কলকাতা হাই কোর্টের বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্য। প্যানেল থেকে শুরু করে মেধাতালিকা সবটাই বাতিল করে দেওয়া হল।

চাকরির মেধাতালিকায় দুর্নীতির অভিযোগে ২০১৯ সালে মামলা দায়ের হয়। সেই মামলার প্রেক্ষিতে নিয়োগ প্রক্রিয়ায় স্থগিতাদেশ দেয় আদালত। দীর্ঘ শুনানি চলার পর অবশেষে শুক্রবার রায় দিল হাইকোর্ট।

২০১৬-র বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক-শিক্ষিকা নিয়োগের জন্য মেধা-তালিকা প্রকাশ করেছিল স্কুল সার্ভিস কমিশন।

কিন্তু তাকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে হাইকোর্টে বেশ কয়েকটি মামলা করেন কয়েক হাজার প্রার্থী। এক্ষেত্রে ব্যাপক দুর্নীতির অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়ে। শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়ায় জট কাটাতে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিল স্কুল সার্ভিস কমিশনও।

এই মামলার বিচারপতি মৌসুমি চট্টোপাধ্যায় শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া খারিজের নির্দেশ দিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের জন্য ২০১১ ও ২০১৫ সালে টেট হয়েছিল। টিচার এলিজিবিটি টেস্ট বা টেটে যাঁরা নির্বাচিত হয়েছিলেন তাঁদের ভেরিফিকেশনের জন্য ২০১৬ সালে বিজ্ঞপ্তি জারি হয়। ওই তালিকাকে চ্যালেঞ্জ করে ২০১৯ সালে কলকাতা হাই কোর্টে মামলা করা হয়।

মামলাকারীদের অভিযোগ ছিল, যাঁরা যোগ্য নন তাঁদেরই তালিকায় নাম রয়েছে। অনেকেই মনে করছেন রাজনৈতিক স্বার্থ চরিতার্থ করতে টাকার বিনিময়ে চাকরি পাইয়ে দিতেই তালিকায় এই কারচুপি।

এর পিছনে বিপুল পরিমাণ আর্থিক দুর্নীতি যুক্ত রয়েছে।

মামলাটি কলকাতা হাই কোর্টের বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্যের এজলাসে চলছিল। সেই মামলাতেই এই রায় দিলেন বিচারপতি। তিনি বলেন, “শিক্ষক নিয়োগ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। কারণ শিক্ষকের উপরেই ছাত্রছাত্রীদের ভবিষ্যৎ নির্ভর করে। টেট তালিকায় যাঁদের নাম এসেছে তা যথাযথ নয়। তাই মেরিট লিস্ট বাতিল করা হল।

Vinkmag ad

Eastern Times

Read Previous

সড়ক থেকে আদালতেও পৌছালো কৃষকদের বিক্ষোভ

Read Next

কেন্দ্রের তলবে দিল্লি না যাওয়ার ইঙ্গিত মুখ্যসচিব, ডিজিপি-র

Leave a comment

You have successfully subscribed to the newsletter

There was an error while trying to send your request. Please try again.

easterntimes will use the information you provide on this form to be in touch with you and to provide updates and marketing.