Breaking News

ভারতে করোনার টিকাকরণ কর্মসূচির সূচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

Prime Minister Narendra Modi has launched a corona vaccination program in India

ইস্টার্ন টাইমস , নয়াদিল্লি : অপেক্ষার অবসান। ভারতে করোনার টিকাকরণ কর্মসূচির সূচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বিশ্বের বৃহত্তম গণটিকাকরণ কর্মসূচির সূচনা করে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ‘ভ্যাকসিন তৈরি হতে অনেক সময় লাগে। কিন্তু দেশের বৈজ্ঞানিকরা দিন-রাত এক করে পরিশ্রম করেছেন। ওঁদের প্রশাংসা প্রাপ্য। ৩ কোটি স্বাস্থ্যকর্মীকে ভারত সরকার বিনামূল্যে টিকা দেবে।

সঙ্কটের দিনে তাঁরাই আমাদের আশার আলো দেখিয়েছেন। আমাদের বাঁচাতে তাঁরা জীবনের ঝুঁকি নিয়েছেন। বাড়ির বাইরে থেকে, পরিবার–পরিজনদের থেকে দূরে থেকে দিনের পর দিন ত্যাগ স্বীকার করে গেছেন চিকিৎসক, নার্স, আশাকর্মী, পুলিশেরা। করোনা বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাওয়া কর্মীদের আগে টিকা দিয়ে দেশ ঋণ শোধ করবে। দ্বিতীয় দফায় ৩০ কোটি মানুষ টিকা পাবেন। ধীরে ধীরে সব দেশবাসীকেই টিকা দেওয়া হবে।’
টিকাকরণ কর্মসূচিতে অংশ নিতে এদিন দিল্লির অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্স (এইমস)এ যান কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন। তাঁর উপস্থিতিতেই প্রথম টিকা নেন মণীশ কুমার নামে সাফাইকর্মী।

টিকা নিয়েছেন এইমস ডিরেক্টর রণদীপ গুলেরিয়াও। টিকাকরণ অভিযানে যাঁরা অংশ নিয়েছেন, তাঁদের স্বাগত জানাতে পুণের আউন্ধ জেলার একটি হাসপাতাল এদিন রঙ্গোলি এঁকে পুরো চত্বর সাজিয়ে তোলা হয়। এক স্বাস্থ্যকর্মী বলেন, ‘‌টিকাকরণ শুরু হচ্ছে, হাঁপ ছেড়ে বাঁচলাম। কোভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ আমিই পেতে চলেছি।’‌

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এদিন তাঁর ভাষণে টিকাকরণ কর্মসূচি নিয়ে গুজবে কান দিতে বারণ করেন ।

তিনি বলেন, ‘‌দু’‌টি টিকার ট্রায়ালের রিপোর্ট ভাল করে যাচাই করার পরই ছাড়পত্র দিয়েছে ডিসিজিআই ( ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল অফ ইন্ডিয়া )। ভারতে তৈরি টিকার বিশ্বজুড়ে নাম রয়েছে।’‌ প্রথম ডোজ নেওয়ার ২৮ দিন পর দ্বিতীয় ডোজটিও নেওয়া অত্যন্ত জরুরি, জানালেন তিনি। বলেন, ‘‌দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার সপ্তাহ দুয়েক পর থেকেই শরীরে সঠিক মাত্রায় রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে উঠতে দেখা যাবে।’‌

টিকাকরণ শুরু হলেও দেশবাসীকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ব্যাপারে সতর্ক করেছেন প্রধানমন্ত্রী। তাঁর সতর্কবাণী, ‘টিকাকরণের পরও মাস্ক পড়তে হবে, ২ গজের দূরত্ববিধি মানতে হবে। গা ঢিলে দিলে পরিণতি কঠিন হতে পারে।’এদিন ‘জনতা কার্ফু’ ও লকডাউনের প্রসঙ্গও তুলে ধরেন মোদী। বলেন, ‘জনতা কার্ফু ছিল ভারতীয়দের কাছে একজোট হওয়ার লড়াই। তখনই লকডাউনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছিল।

নিরাশার এই সময়ই আশার সঞ্চার করেছিল।’

গোটা দেশের মোট ৩০০৬ কেন্দ্রে টিকাকরণের কাজ হচ্ছে। প্রত্যেক কেন্দ্রে ১০০ জনকে করোনার টিকা দেওয়া হচ্ছে। প্রথম পর্যায়ে দেশব্যাপী মোট ৩ কোটি মানুষকে টিকাকরণ করে হচ্ছে। এঁরা প্রত্যেকেই করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধে সামিল স্বাস্থ্যকর্মী ও ফ্রন্টলাইন কর্মী।স্বাস্থ্যমন্ত্রক সূত্রে খবর, পরের দফার টিকাকরণ কর্মসূচিতে পঞ্চাশোর্ধ ব্যক্তি এবং পঞ্চাশের নীচে থাকা ঝুঁকিপূর্ণদের টিকা দেওয়া হবে।

Vinkmag ad

Eastern Times

Read Previous

কেমন যাবে আপনার আজকের দিনটি : দৈনিক রাশিফল

Read Next

আমেরিকার সবচেয়ে বেশি কৃষিজমির মালিক হলেন বিল গেটস

Leave a comment

You have successfully subscribed to the newsletter

There was an error while trying to send your request. Please try again.

easterntimes will use the information you provide on this form to be in touch with you and to provide updates and marketing.