Breaking News

তৃণমূল বিধায়ক খুনের মামলায় অতিরিক্ত চার্জশিটে অন্যতম অভিযুক্ত মুকুল রায়

Mukul Roy is one of the accused in the additional chargesheet in the murder case of Trinamool MLA

ইস্টার্ন টাইমস , নয়াদিল্লি : প্রয়াত তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক সত্যজিৎ বিশ্বাস খুনের দ্বিতীয় সাপ্লিমেন্টারি চার্জশিটে যুক্ত হলো বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি মুকুল রায়ের নাম। মূল ষড়যন্ত্রকারী হিসাবে দেখানো হয়েছে মুকুল রায়’কে। তাঁকে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০২ এবং ১২০ বি ধারায় অভিযুক্ত করা হয়েছে সিআইডির দ্বিতীয় সাপ্লিমেন্টারি চার্জশিটে ।

সরকারি আইনজীবী প্রদীপকুমার প্রামাণিক জানিয়েছেন, সাপ্লিমেন্টারি চার্জশিটে সন্দেহভাজন ছিলেন মুকুল রায়। তদন্ত চলছিল। সেই তদন্তের ভিত্তিতেই মুকুল রায়ের নাম দ্বিতীয় সাপ্লিমেন্টারি চার্জশিটে রাখা হয়েছে। যদিও এদিন মুকুল রায় দাবি করেন, ‘ষড়যন্ত্র চলছে। মিথ্যা অভিযোগে ফাঁসানো হয়েছে তাঁকে।’ রাজ্যের পুলিশ মন্ত্রীর নাম কি? প্রশ্ন তোলেন মুকুল রায়।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ৯ ফেব্রুয়ারি, সরস্বতী পুজোর উদ্বোধনে গিয়ে হাঁসখালি থানার ফুলবাড়িতে খুন হন কৃষ্ণগঞ্জের বিধায়ক সত্যজিৎ বিশ্বাস।

তদন্তে নেমে পুলিশ অভিজিৎ পুণ্ডারি নামে স্থানীয় এক যুবককে গ্রেপ্তার করে। পরবর্তী সময়ে বিধায়ক খুনের দায়িত্বভার সিআইডি’র হাতে তুলে দেয় রাজ্য সরকার।

এরপরই তদন্তে নেমে মূল অভিযুক্ত অভিজিৎ পুণ্ডারি, নির্মল ঘোষ, সঞ্জীব মণ্ডল ও কার্তিক মণ্ডলকে গ্রেপ্তার করেন তদন্তকারীরা। শাসক দলের দাবি, ধৃতরা প্রত্যেকেই বিজেপির সক্রিয় কর্মী। যদিও ধৃতদের নিজেদের দলের কর্মী বলে মানতে নারাজ জেলা বিজেপি নেতৃত্ব। তদন্তে নাম উঠে আসে বিজেপি সাংসদ জগন্নাথ সরকারের। এফআইআরে তাঁর নাম ছিল। তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেন সিআইডি আধিকারিকরা।

একাধিকবার সিআইডি’র তলবে তিনি ভবানীভবনে গিয়ে জেরার মুখোমুখি হয়েছেন। প্রতিবারই জগন্নাথ সরকারের বক্তব্য ছিল, তদন্তে সহযোগিতা করতে এসেছেন তিনি। ঘটনার দেড় বছরেরও বেশি সময় পর রানাঘাট মহকুমা আদালতে সাপ্লিমেন্টারি চার্জশিট পেশ করেছে সিআইডি। দেখা যায়, তাতে নাম রয়েছে সাংসদ জগন্নাথ সরকারের। আর এবার দ্বিতীয় সাপ্লিমেন্টারি চার্জশিটে নাম রয়েছে মুকুল রায়ের।

 

Vinkmag ad

Eastern Times

Read Previous

রাজ্য রাজনীতিতে ঝড় তুলে দিলেন সারদাকর্তা সুদীপ্ত সেন, বললেন টাকা দিয়েছি শুভেন্দু ,মুকুল ,বিমান ,সুজন ,অধীরকে

Read Next

দাদা ভাইয়ের গৃহ যুদ্ধ কে সরিয়ে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করতে চান বাকিরা

Leave a comment

You have successfully subscribed to the newsletter

There was an error while trying to send your request. Please try again.

easterntimes will use the information you provide on this form to be in touch with you and to provide updates and marketing.