Breaking News

তৃণমূল কংগ্রেস থেকে বহিষ্কার করা হল বিধায়িকা বৈশালী ডালমিয়াকে

MLA Vaishali Dalmiya was expelled from the Trinamool Congress

ইস্টার্ন টাইমস , কলকাতা : তৃণমূল কংগ্রেস থেকে বহিষ্কার করা হল বিধায়িকা বৈশালী ডালমিয়াকে। দলবিরোধী কার্যকলাপের জন্য তাঁকে বহিষ্কার করল দল। অভিযোগ, প্রকাশ্যে দলের বিরুদ্ধে একাধিকবার মন্তব্য করেছেন তিনি। তারই শাস্তিমূলক ব্যবস্থা হিসাবে বৈশালী ডালমিয়াকে বহিষ্কার করল তৃণমূল।

অভিযোগ, দলের একাধিক নেতা-মন্ত্রীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময় নানা অভিযোগ করেছিলেন বৈশালী। এদিন এক বৈদ্যুতিন সংবাদমাধ্যমে সাক্ষাৎকারে মন্ত্রী অরূপ রায়ের বিরুদ্ধেও একাধিক অভিযোগ এনেছিলেন তিনি।

এরপরই তৃণমূল কংগ্রেসের শৃঙ্খলা রক্ষা কমিটি বহিষ্কার করে বালির বিধায়ককে। দলের তরফে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, তৃণমূলের বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময় মন্তব্য করেছেন বৈশালী ডালমিয়া।

এমনকী, দলবিরোধী একাধিক মানুষের সঙ্গে তাঁর ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ ছিল। এ ধরনের কার্যকলাপ নিয়ে তাঁকে বারবার সতর্ক করা হয়েচিল। তবু নিজের আচরণ বদলাননি। তাই এবার বৈশালীকে বহিষ্কৃত করা হল।

ওয়াকিবহাল মহলের দাবি, এই পদক্ষেপ করে দলের মধ্যে যারা গণতন্ত্র, স্বচ্ছতা এবং দুর্নীতির বিরুদ্ধে কথা বলছেন তাঁদের কড়া বার্তা দিল তৃণমূল।

প্রসঙ্গত এ দিন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় পদত্যাগ করতেই বৈশালী ডালমিয়া বিভিন্ন বৈদ্যুতিক সংবাদমাধ্যমে দলের একাংশের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন। হাওড়ায় রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় এবং অরূপ রায়ের দ্বন্দ নতুন নয়।

প্রথম থেকেই এই দ্বন্দ্বে অরূপ রায়ের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করে এসেছেন বৈশালী। এদিন রাজীব মন্ত্রীত্ব ছাড়তেই সরাসরি অরূপ রায়ের নাম করে বলেন, তাঁর জন্যেই কাজ করা অসম্ভব হয়ে যাচ্ছে। বৈশালীর মন্তব্য ছিল, ‘অরূপ রায় নিজেকে জেলার মুখ্যমন্ত্রী ভাবেন।’ বৈশালী বলেছিলেন, রাজীব মন্ত্রীত্ব ছাড়ায় বড় ক্ষতি হয়ে গেল।

শুধু দলের নয়, এটা সাধারণ মানুষেরও ক্ষতি। এই মন্তব্য নিয়ে চাপানউতোর শুরু হয়। দল এই মন্তব্য মোটেই ভালো ভাবে নেয়নি। বিকেলেই পদক্ষেপ করে তৃণমূলের শৃঙ্খলারক্ষা কমিটি।

বহিষ্কার প্রসঙ্গে এদিন বৈশালী জানান তিনি মানুষের পাশে থেকেই কাজ করবেন।

Vinkmag ad

Eastern Times

Read Previous

নজিরবিহীনভাবে নেতাজি জন্মজয়ন্তীতে কলকাতায় প্রধানমন্ত্রী ও মুখ্যমন্ত্রীর দুটি পৃথক কর্মসূচি

Read Next

সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যবহার ও শাসক দলের দ্বিচারিতা

Leave a comment

You have successfully subscribed to the newsletter

There was an error while trying to send your request. Please try again.

easterntimes will use the information you provide on this form to be in touch with you and to provide updates and marketing.