Breaking News

ভারত প্রথমবারআনুষ্ঠানিকভাবে আর্থিক মন্দায় প্রবেশ করল

ইস্টার্ন টাইমস , নয়াদিল্লি: ভারত প্রথমবার আনুষ্ঠানিকভাবে আর্থিক মন্দায় প্রবেশ করল। দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) মোট অভ্যন্তরীণ উৎপাদন সঙ্কুচিত হল ৭.‌৫% ।

পরিসংখ্যান মন্ত্রক এ তথ্য প্রকাশ করেছে। এর আগে এই আর্থিক বছরের প্রথম ত্রৈমাসিকে (এপ্রিল-জুন) সংকোচনের পরিমাণ ছিল ২৩.৯ শতাংশ। তার কারণ ছিল করোনাকাণ্ডের জেরে লকডাউন।

এবারের সংকোচনের পরিমাণ আরও হ্রাস পাওয়ায় ভারত যে গভীর অন্ধকারের সামনে দাঁড়িয়ে এ নিয়ে সংশয়ের আর কোনও অবকাশ নেই।। বিভিন্ন ক্ষেত্রের উৎপাদনে মোট যুক্তমূল্য কমেছে ৭%।

শুক্রবার রিপোর্ট দিয়ে জানাল জাতীয় পরিসংখ্যান দপ্তর। এপ্রিল–জুনের ত্রৈমাসিকে প্রায় ২৪% জিডিপি সঙ্কোচনের পর অর্থনীতি স্বাভাবিক নিয়মে খানিক ঘুরে দঁাড়ালেও মন্দা ঠেকানো গেল না।

পরপর দু’‌টি ত্রৈমাসিকে মোট অভ্যন্তরীণ উৎপাদন সঙ্কুচিত হলে অর্থনীতিতে মন্দা ধরে নেওয়া হয়। ১৯৯৬ সাল থেকে ত্রৈমাসিকের নিরিখে আর্থিক বৃদ্ধির হার মাপা শুরু হয় দেশে, তার নিরিখে এই প্রথম মন্দার কবলে ভারত।

কৃষকশক্তির জয়ের দিনেই অর্থনীতির মন্দায় প্রবেশ ভারতের >>

অতিমারী আবহে যে সঙ্কটের মুখে পড়েছিল ভারতের অর্থনীতি, তা থেকে অনেকটাই ঘুরে দাঁড়িয়েছে, সম্প্রতি জানিয়েছেন রিজার্ভ ব্যাঙ্কের গভর্নর শক্তিকান্ত দাস।

সাম্প্রতিক পরিসংখ্যানেও তা স্পষ্ট। উৎপাদন ক্ষেত্রে ০.‌৬% বৃদ্ধি হয়েছে দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে। কৃষিক্ষেত্রে বৃদ্ধি ৩.‌৪%। যদিও ব্যক্তিগত খরচ ১১.‌৫% কমেছে এই সময়ে, যার অর্থ বাজারে এখনও চাহিদা ফেরেনি।

এখনও বৃদ্ধির মুখ দেখেনি নির্মাণ এবং খনিশিল্প। বাণিজ্য এবং হোটেল শিল্প প্রায় ১৫% সঙ্কুচিত হয়েছে দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে। অক্টোবরের শেষে রাজকোষ ঘাটতি বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯.‌৫৩ লক্ষ কোটি। যা বাজেট বরাদ্দের প্রায় ১২০%।

উল্লেখ্য , বৃহস্পতিবারেই ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্কের চেয়ারম্যান শক্তিকান্ত দাস বলেছিলেন ,ভারতীয় অর্থনীতি করোনা সংক্রমণের ফলে যে সংকটের মুখে পড়েছিল, তা থেকে আশাতীত গতিতে ঘুরে দাঁড়াচ্ছে দেশ।

বিদেশি মুদ্রা লেনদেনের বাণিজ্যিক সংগঠন ‘ফরেন এক্সচেঞ্জ ডিলার্স অ্যাসোসিয়েশন অব ইন্ডিয়া’ (এফইডিএআই)-এর বার্ষিক সভায় তিনি বলেন , ২০২০-২১ আর্থিক বর্ষের প্রথম ত্রৈমাসিকে আর্থিক বৃদ্ধির হারে অত্যাধিক পতনের পর, বিভিন্ন ক্ষেত্রে আর্থিক কার্যকলাপ শুরু হওয়ার ফলে ভারতের অর্থনীতি অনেকটাই ঘুরে দাঁড়িয়েছে।

Vinkmag ad

Eastern Times

Read Previous

Bangladesh is paralyzed due to misrule and famine, Says BNP leader Selima

Read Next

আদানি গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ সিডনি ক্রিকেট মাঠে

Leave a comment

You have successfully subscribed to the newsletter

There was an error while trying to send your request. Please try again.

easterntimes will use the information you provide on this form to be in touch with you and to provide updates and marketing.