Breaking News

ধর্মের নামে বিভেদ সৃষ্টি করতে দেব না: শেখ হাসিনা

I will not allow division in the name of religion: Sheikh Hasina

ইস্টার্ন টাইমস বিশেষ সংবাদদাতা , ঢাকা, ১৫ ডিসেম্বর: বাংলাদেশে ধর্মের নামে কোনো বিভেদ সৃষ্টি করতে দেবেন না বলে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘বাংলাদেশের মানুষ ধর্মপ্রাণ, ধর্মান্ধ নয়। ধর্মকে রাজনীতির হাতিয়ার করবেন না।’

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে তিনি বলেন, বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ। মুসলমান, হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান – সকল ধর্মের-বর্ণের মানুষের রক্তের বিনিময়ে এ দেশ স্বাধীন হয়েছে। যার যার ধর্ম পালনের অধিকার এ দেশের প্রত্যেক নাগরিকের আছে।

সম্প্রতি বাংলাদেশে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের বিরোধিতায় মৌলবাদীদের তৎপরতার মধ্যে শেখ হাসিনা স্পষ্ট করে বলেন, “এ বাংলাদেশ লালন শাহ, রবীন্দ্রনাথ, কাজী নজরুল, জীবনানন্দের বাংলাদেশ।

এ বাংলাদেশ শাহজালাল, শাহ পরাণ, শাহ মখদুম, খানজাহান আলীর বাংলাদেশ। এই বাংলাদেশ শেখ মুজিবের বাংলাদেশ; সাড়ে ষোল কোটি বাঙালির বাংলাদেশ। এ দেশ সকলের।

তিনি বলেন, ‘ এ দেশে ধর্মের নামে কোনো ধরনের বিভেদ-বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে আমরা দেব না। ধর্মীয় মূল্যবোধ সমুন্নত রেখে এ দেশের মানুষ প্রগতি, অগ্রগতি এবং উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাবেন।’

পরাজিত শক্তির দোসররা বাংলাদেশকে আবারও ৫০ বছর আগের অবস্থায় ফিরে নিয়ে যাওয়ার অপচেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, ‘রাজনৈতিক মদদে সরকারকে ভ্রুকুটি দেখানোর পর্যন্ত ধৃষ্টতা দেখাচ্ছে। ১৯৭১’র পরাজিত শক্তির একটি অংশ মিথ্যা, বানোয়াট, মনগড়া বক্তব্য দিয়ে সাধারণ ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের বিভ্রান্ত করতে মাঠে নেমেছে।’

Vinkmag ad

Eastern Times

Read Previous

কৃষক আন্দোলন নিয়ে আবার প্রধানমন্ত্রীর নিশানায় বিরোধীরা

Read Next

মোদি-হাসিনার ভার্চুয়াল বৈঠকে স্বাক্ষর হবে ৪ চুক্তি

Leave a comment

You have successfully subscribed to the newsletter

There was an error while trying to send your request. Please try again.

easterntimes will use the information you provide on this form to be in touch with you and to provide updates and marketing.