Breaking News

ফাঁকা স্টেডিয়ামে খেলতে সমস্যা হয় নর্থ ইস্ট ম্যাচ জিতে বলছেন হাবাস

Habas says winning the North East match is a problem to play in an empty stadium

ইস্টার্ন টাইমস , কলকাতা: রবিবার দলের প্রথমার্ধের খেলা নিয়ে তিনি সন্তুষ্ট ছিলেন না। তবে দ্বিতীয়ার্ধের খেলায় বেশ খুশি এটিকে মোহনবাগানের কোচ আন্তোনিও লোপেজ হাবাস। নতুন বছরের প্রথম ম্যাচ জিতে হিরো আইএসএল টেবলের শীর্ষে পৌঁছনোর পরে স্প্যানিশ কোচ সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, “প্রথমার্ধে আরও ব্যালান্সড ফুটবল খেলা উচিত ছিল।

কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে দুরন্ত ফুটবল খেলে আমাদের ছেলেরা। আজ সব মিলিয়ে ভাল পারফরম্যান্স হয়েছে আমাদের”।

এ পর্যন্ত যে দশটি গোল করেছে এটিকে মোহনবাগান, তার মধ্যে ন’টিই দ্বিতীয়ার্ধে এসেছে। এর ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে হাবাস বলেন, “গ্যালারি ফাঁকা থাকায় ছেলেরা খেলায় ঠিকমতো গতি আনতে পারে না সব সময়।

ওদের জন্য গলা ফাটানোর জন্য কেউ থাকে না বলে হয়তো কিছুটা উৎসাহের অভাব হয়। এই পরিবেশে ধাতস্থ হতে না পারলে খেলায় সেই তীব্রতা আসে না। এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার হয়ে উঠতে পারে”।

রবিবার ফতোরদা স্টেডিয়ামে দুই দলেরই কৌশলী ফুটবলে প্রথমার্ধ গোলশূন্য থাকার পরে দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই অসাধারণ গোল করে দলকে এগিয়ে দেন কলকাতার দলের সেরা তারকা রয় কৃষ্ণা।

সাত মিনিট পরেই নর্থইস্ট ইউনাইটেডের ফরোয়ার্ড ভিপি সুহের আত্মঘাতী গোল করে ব্যবধান বাড়িয়ে দেন। এই জয়ের ফলে ফের লিগ তালিকার শীর্ষে চলে গেল সবুজ-মেরুন বাহিনী।

ফিজিয়ান অলিম্পিয়ান রয় কৃষ্ণা এ দিন তাঁর ষষ্ঠ গোলটি করেন। তাঁর ওপর দল বেশিই ভরসা করে ফেলছে কি না, জানতে চাইলে হাবাস বলেন, “রয় আমাদের দলের খুবই গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়।

যেই গোল করুক, তা দলের জন্য। আমি এই নিয়ে চিন্তিত নই”। মনবীর সিংকে প্রথম এগারোয় না রাখা নিয়ে সবুজ মেরুন কোচ বলেন, “মনবীর টানা তিনটে ম্যাচ খেলেছে। প্রণয় হালদারের ক্ষেত্রেও ব্যাপারটা একই।

ওদের তাই বিশ্রাম দরকার ছিল। তাই ওদের বেঞ্চে রেখেছিলাম আজ। যখন বিপক্ষ ক্লান্ত হয়ে পড়ে, তখনই ওদের নামানোর প্রয়োজন ছিল”।

Vinkmag ad

Eastern Times

Read Previous

প্রধানমন্ত্রী কিষান সম্মান নিধি যোজনার সুবিধা রাজ্যের কৃষক পাক আমিও চাই ,বললেন মুখ্যমন্ত্রী

Read Next

আই এস এলে প্রথম জয় স্বস্তি দিচ্ছে ফাউলারকে

Leave a comment

You have successfully subscribed to the newsletter

There was an error while trying to send your request. Please try again.

easterntimes will use the information you provide on this form to be in touch with you and to provide updates and marketing.