Breaking News

বাংলায় ফ্যাসিবাদী আর এস এস – বিজেপি বিরোধী জোট : নানা প্রশ্ন,নানা কথা

Fascist RSS in Bengal - Anti-BJP Alliance: Many questions many words

পারিজাত সেনগুপ্ত

বাংলায় নির্বাচনের ঢাকে কাঠি পড়ে গেছে। নিত্য দলবদল,রাজনৈতিক তরজার মাঝে দিল্লিতে কৃষক আন্দোলন, এন আর সি বিরোধী লড়াইনিয়ে কথাও চলছে। এই অবস্থায় বিভিন্ন মহলে উদ্যোগ চলছে রাজ্যে একটি ফ্যাসিবাদ বিরোধী মঞ্চ গঠনের।তবে সেই মঞ্চের গঠন,কর্তব্য, শ্লোগান নিয়ে ভিন্ন মতের বিষয়টিও ধীরে ধীরে স্পষ্ট হচ্ছে।

এ ব্যাপারে প্রথম সংগঠিত উদ্যোগ গত ৪ জানুয়ারি কলকাতার ভারত সভা হলে।প্রায় তিন শতাধিক মানুষের উপস্থিতিতে তৈরি হয়েছে ‘ ফ্যাসিস্ট আর এস এস বিজেপির বিরুদ্ধে বাংলা’।

এই মঞ্চ মনে করে ফ্যাসিবাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন প্রশ্নে দীর্ঘস্থায়ী গণ আন্দোলন ও সামাজিক নির্মানের কাজই পারে ফ্যাসিবাদের উত্থানকে প্রতিরোধ করতে।আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে এই মঞ্চের তরফ থেকে যে ক্যাম্পেন গ্রহণ করা হয়েছে তার মূল স্লোগান ‘ নো ভোট টু বিজেপি ‘।

সংগঠকদের পক্ষে সুজাত ভদ্র,কুশল দেবনাথ, অমিতাভ ভট্টাচার্য এক সাংবাদিক সম্মেলনে জানিয়েছেন আগামী দিনগুলিতে তারা এই শ্লোগান কে সামনে রেখে বিজেপির ফ্যাসিবাদী চরিত্রকে উন্মোচন করতে সারা রাজ্য জুড়ে প্রচার করবেন।

কিন্তু বিজেপির বদলে অন্য কোন রাজনৈতিক দলকে কি এই উদ্যোগ সমর্থন করবে? এ ব্যাপারে উদ্যোক্তাদের জবাব তারা এ ব্যাপারটা জনগণের উপর ছেড়ে দিচ্ছেন।

কিন্তু স্টুডেন্ট হলের সভাতে এ নিয়ে কিছু প্রস্তাব উঠেছিল। যার মধ্যে ছিল প্রথম দফার প্রচারের শেষে যেখানে যে বিজেপি বিরোধী প্রার্থীর জয়ের সম্ভাবনা বেশি তাকে সমর্থন করা ষেতে পারে।কেউ আবার বিজেপিকে আটকাতে তৃণমূল, বাম ও কংগ্রেস যাতে যৌথ ভাবে প্রার্থী দেয় তার দাবি তোলেন।

এই একই কথা সম্প্রতি এক লিখিত বিবৃতিতে বলেছেন খনি অঞ্চলের শ্রমিক নেতা সোমনাথ চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেছেন দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে ফ্যাসিবাদের বিরুদ্ধে স্তালিন যে ভাবে রুজভেল্ট ও চার্চিলকে বাধ্য করেছিলেন আন্তর্জাতিক যুদ্ধফ্রন্টে সামিল হতে,চিনে জাপানি সাম্রাজ্যবাদের বিরুদ্ধে মাও সে তুং যে ভাবে লক্ষ লক্ষ কমিউনিস্ট নিধনকারী চিনের দক্ষিণপন্থী প্রতিক্রিয়াশীল শিবিরের নেতা চিয়াং কাই শেককে বাধ্য করেছিলেন জাপ বিরোধী জাতীয় যুক্তফ্রন্টে সামিল হতে,তেমনি আসন্ন নির্বাচনী যুদ্ধে রাজ্যের সকল বামপন্থীদের উচিত তৃণমূল কংগ্রেসকে সামিল করার জন্য রাজ্যব্যাপী প্রচার অভিযান গড়ে তোলা ও নির্বাচনী জোট গঠনে বাধ্য করা।

তবে ফ্যাসিবাদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ ফ্রন্ট গঠনের উদ্যোগকে স্বাগত জানালেও নো ভোট টু বিজেপি শ্লোগানকে ঐক্যর পূর্ব শর্ত হিসাবে মানতে নারাজ বাম ও অধিকার আন্দোলনের কর্মীদের আরেকটি অংশের।যেমন এন আর সি- এন পি আর প্রতিরোধ মঞ্চের আনোয়ার হোসেন প্রচারিত বক্তব্যে বিজেপি বিরোধীতার প্রশ্নে কোন দ্বিমত না থাকলেও তাদের মতে সংযুক্ত মঞ্চ থেকে কোন দলকে ভোট দেওয়া বা

ভোট বয়কটের কথা বলা যাবে না।তবে ফ্যাসিবিরোধী মঞ্চের মধ্যেকার কোন সংগঠন নির্বাচন প্রশ্নে তাদের অবস্থান তাদের নিজেদের সংগঠন থেকে বলতেই পারে।আবার ১ জানুয়ারি ভিমা কোঁরেগাও মামলায় গ্রেফতার হওয়া কবি,বুদ্ধিজীবি, গণ আন্দোলন কর্মীদের মুক্তির দাবিতে গড়ে ওঠা ‘ রিলিজ দা পোয়েট ‘ এর উদ্যোগে এক সভায় নির্বাচনের প্রশ্নকে বাদ দিয়ে একটি ফ্যাসিবাদ বিরোধী মঞ্চ গঠে তোলার উদ্যোগ নেওয়ার কথা বলা হয়েছে।

প্রবীণ মানবাধিকার কর্মী সীতাংশুশেখর বলেন কেউ যদি নির্বাচনের মাধ্যমে ফ্যাসিবাদকে আটকাতে চায় তবে তিনি তার বিরোধিতা করতে যাবেন না কিন্তু নির্বাচনী জোটের মাধ্যমে ফ্যাসিবাদকে আটকানো সম্ভব নয়।

তার বিশ্বাস রাস্তা, একমাত্র রাস্তার লড়াইয়ের মাধ্যমে ফ্যাসিবাদকে উৎখাত করা যেতে পারে।সমস্ত ফ্রন্টেইএই শক্তিকে উন্মোচিত করতে হবে।তিনি ও তার বন্ধুরা বিভিন্ন প্রচার পুস্তিকা তৈরি করে আগামী দিনে ফ্যাসিবাদী আর এস এস বিজেপির বিরুদ্ধে প্রচারে নামবেন।

প্রগতিশীল সাংস্কৃতিক আন্দোলনের দীর্ঘ দিনের কর্মী রতন বসু মজুমদার বিশ্বাস করেন এই কঠিন সময়ে ভারতের বহুত্ববাদী চরিত্র কে অক্ষুণ্ণ রাখতে,ধর্মনিরপেক্ষ গণতান্ত্রিক ভারতে রক্ষা করতে এগিয়ে আসতে হবে সাংস্কৃতিক কর্মীদের।আজ যখন এ রাজ্য ফ্যাসিবাদী শক্তি মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে তখন রবীন্দ্রনাথ, নজরুল, লালন,চৈতন্য, রোকেয়া, বিদ্যাসাগরের বাংলা চুপ করে থাকতে পারে না।তাই আগামী ১০ জানুয়ারি কলকাতায় ফ্যাসিবিরোধী লেখক কবি শিল্পী সমাবেশের ডাক দেওয়া হয়েছে।

ফ্যাসিবিরোধী মঞ্চের ক্ষেত্রে নির্বাচনের প্রশ্নটিকে ঘিরে সোসাল মিডিয়ায় বিতর্ক শুরু হয়ে গেছে।একদিকে রয়েছে ‘ নো ভোট টু বিজেপি ‘ চ্যালেঞ্জ অন্যদিকে ‘ রেজিস্ট ফ্যাসিজম’ এর আহ্বান।এখানে শ্লোগান তোলা হয়েছে ‘ ভোটের লড়াই মুখ্য নয়/দিল্লি থেকে শিক্ষা নিন/ রুটি রুজির লড়াই গড়ে/ বিজেপি কে রুখে দিন।

শোনা যাচ্ছে আগামী দিনে কলকাতায় আরেকটি ফ্যাসিবাদ বিরোধী সমাবেশ হতে চলেছে যাতে নির্বাচনের বিষয়টিকে বিযুক্ত করে ফ্যাসিবাদ বিরোধিতার আহ্বান জানানো হবে।

বাংলাদেশে ভ্যাকসিন পাঠাতে ভারতের নিষেধাজ্ঞা নেই : দোরাইস্বামী >>

Vinkmag ad

Eastern Times

Read Previous

বাংলাদেশে ভ্যাকসিন পাঠাতে ভারতের নিষেধাজ্ঞা নেই : দোরাইস্বামী

Read Next

দিল্লি-গুজরাতের কাছে বাংলাকে বিক্রি করার চেষ্টা, লাভ হবে না: অভিষেক বন্দোপাধ্যায়

Leave a comment

You have successfully subscribed to the newsletter

There was an error while trying to send your request. Please try again.

easterntimes will use the information you provide on this form to be in touch with you and to provide updates and marketing.